Reader Response

বইমেলায় অনেক ঘোরাঘুরি করে বইটি কিনলাম। লকডাউনের এই ছুটিতে বইয়ের প্রথম কয়েকটি পাতা পড়ার পরই চুম্বকের মত মনোযোগ ঢুকে গেল। হুমায়ুন আহমেদ এর পর কোন লেখকের বই আমাকে এভাবে আকর্ষণ করতে পারেনি। লেখক যেভাবে পাঠকের মুড সুইং করিয়েছেন, আপনাকে সম্মান জানাই। বইটি পড়ছিলাম আর শরীর কাটা দিয়ে উঠছিল। বাংলা সাহিত্যের অমর সৃষ্টি হিসেবে এ উপন্যাসটি আজীবন রয়ে যাবে বলে আমি মনে করি। আব্দুল্লাহ শুভ্র আপনার পরবর্তী উপন্যাসের অপেক্ষায় রইলাম।
উপন্যাস নীল ফড়িং
২১শে বই মেলায় প্রকাশিত
প্রচলিত লেখনি কৌশলের বাইরে, লেখকের একান্ত ও প্রাণবন্ত ধারায় রচিত একটি আশ্চর্য সুখ পাঠ্য সাহিত্য কর্ম, আশা করি সকল শ্রেণির পাঠকের মন জয় করবে “নীল ফড়িং”। অফুরান শুভ কামনা।।
উপন্যাস নীল ফড়িং
২১শে বই মেলায় প্রকাশিত
নীল ফড়িঙের ভালোবাসা অফুরন্ত যতই পড়ি ততই ভালো লাগতেছে। কবি এখানে তার সাবলীল ভাষায় ফুটিয়ে তুলেছেন। এই উপন্যাসটি একুশে বই মেলায় অনেক জনপ্রিয়তা পেয়েছে শেষের দিন এত ভিড় ছিল অবশেষে অনেক কষ্টে বইটা সংগ্রহ করতে পেরেছি। সামনের দিনগুলিতে এরকম আরো উপন্যাস পেতে পারি প্রিয় লেখক এর কাছে এটাই প্রত্যাশা কামনা করি । প্রিয় কবির জন্য অফুরন্ত ভালোবাসা ও শুভকামনা রইল ।
উপন্যাস নীল ফড়িং
২১শে বই মেলায় প্রকাশিত
"মাখনের দেশলাই" শেষ পর্যন্ত জীবনেরই গল্প। জীবন ঘেঁটে যাপনের উপলব্ধির গল্প। জীবনকে ভিন্ন আলোকে ভিন্ন দৃষ্টিকোণে দেখার গল্প নয়, আমাদের প্রতিনিয়ত স্বাভাবিকতার আড়ালে লুকানো যে কাদামাটি-আলু-পেয়াজ-করলা তারই গল্প। শুধু লেখকের দৃষ্টিভঙ্গিই তাকে নূতনতর করে মেলে ধরেছে। কঠিন করে লেখাই তো সহজ। সহজ করে লিখতে অনেক কঠিন পথ পার করে আসতে হয়। গল্পের সুচারু গতিতে পাঠকের ছন্দবন্ধন নিশ্চিত। বাংলা সাহিত্যে আরেকজন মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় সংযুক্ত হওয়ার অপেক্ষা মাত্র- পাঠক আমি আশাবাদী।
উপন্যাস মাখনের দেশলাই
২১শে বই মেলায় প্রকাশিত
মাখনের দেয়াশলাই লেখক আব্দুল্লাহ শুভ্রের আরোও একটি অনন্য সৃষ্টি। যথারীতি লেখকের নাম না পড়লেও উপন্যাস পড়লেই বোঝা যায় এটি আব্দুল্লাহ শুভ্রের লেখা একটি বই। উপন্যাস পড়ে বুঝা যায় লেখক তার নিজস্ব স্বকীয়তার ধারা ধরে রেখেছেন। এখানে কতগুলো ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ক্যারেক্টার নিয়ে একটি লম্বা গল্প সার্থকতার সাথে এঁকেছেন। লেখা পড়লে বুঝা যায় লেখক অনেক রুঢ় হওয়ার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু লেখক এর বাহ্যিক রুঢ়তা তার অন্তরের ভালোবাসার কাছে পরাজিত। যা এখানে ফুটে উঠেছে। ভালোবাসার জয় হয়েছে ।লেখক এখানে সর্বোচ্চ লেভেলের নিষ্ঠুরতা দিয়ে মাখন নামের ফ্রাঙ্কেস্টাইনের দৈত্য তৈরি করেছেন। এই ফ্রাঙ্কেনস্টাইনের দত্ত মোহনের ভালোবাসা ও সেক্রিফাইস এর কাছে পরাজিত হয়েছে। যথারীতি ছোট ছোট কিছু ডিপ্লোমেটিক ক্যারেক্টর তৈরী করা হয়েছে যা উপন্যাসটিকে মহিমান্বিত করেছে। যেমন মুসাব আলির শততা, বাড়িওয়ালীর না পাওয়ার অতৃপ্ততা,খেলুর উপরে উঠার বাসনা, লালবানুর সন্তানের প্রতি অন্ধ ভালোবাসা! পরিশেষে লেখক এর কাছে অনুরোধ দ্রুততম সময়ে নতুন উপন্যাসের আবেদন।
উপন্যাস মাখনের দেশলাই
২১শে বই মেলায় প্রকাশিত
Another tremendous novel (Makhoner deashli) by author Abdullah shuvro...characters of the novel were pretty lively...while reading it was feeling like watching a movie...
উপন্যাস মাখনের দেশলাই
২১শে বই মেলায় প্রকাশিত
Home
Search
Video
Blog
About
error: © Abdullah Shuvro
Scroll to Top